ইন্টারনেটে মানুষ যেভাবে প্রতারিতি হয় এদের থেকে সাবধান ৷ - Agunbd.com-Technology Update and Learning Website in WORLD.

Message ME

ইন্টারনেটে মানুষ যেভাবে প্রতারিতি হয় এদের থেকে সাবধান ৷


অনেকেই এখন ইন্টারনেট ব্যাংকিং করেন। এ জন্য মোবাইল বা পিসি থেকে ব্যাংকের ওয়েবসাইট বা অ্যাপ ব্যবহার করেন। কিন্তু সাইবার দুর্বৃত্তেরা বসে নেই। নানা কৌশলে ব্যবহারকারীকে বোকা বানিয়ে অর্থ হাতিয়ে নিতে কাজ করছে তারা। এর মধ্যে গুগলের নানা অ্যাপ কৌশলে কাজে লাগিয়ে আপনার ব্যাংক অ্যাকাউন্ট খালি করে ফেলতে পারে দুর্বৃত্তরা। সাইবার নিরাপত্তা প্রতিষ্ঠান ক্যাসপারস্কির তথ্য অনুযায়ী গুগল ক্যালেন্ডার, ড্রাইভ, ফটোজের মতো সেবা কাজে লাগায় দুর্বৃত্তরা। সাইবার দুর্বৃত্তদের এসব কৌশল সম্পর্কে জেনে রাখুন:


গুগল ক্যালেন্ডার: গুগল ক্যালেন্ডারের মাধ্যমে আপনাকে বোকা বানাতে পারে। কোনো ইভেন্ট বা অনুষ্ঠানের ভুয়া আমন্ত্রণ বা রিমাইন্ডার পাঠাতে গুগল ক্যালেন্ডার ব্যবহার করতে পারে তারা। সেখানে বলা হতে পারে, আপনার ব্যাংকে কিছু টাকা ঢুকবে, এ জন্য আপনাকে কিছু তথ্য দিতে হবে। এর মধ্যে ব্যাংক অ্যাকাউন্টের পিন নম্বরও চাওয়া হতে পারে। তাই অনলাইনে কোথাও ব্যাংক অ্যাকাউন্ট সম্পর্কিত পিন ও পাসওয়ার্ড দেওয়া থেকে সতর্ক থাকুন।




গুগল ফরম: গুগলের অন্যতম টুল ফরম ব্যবহার করে ব্যবহারকারীদের তথ্য সংগ্রহ করা হয়। দুর্বৃত্তরা নানা জরিপ বা কুইজের আদলে আপনার কাছ থেকে গুরুত্বপূর্ণ তথ্য হাতিয়ে নিতে পারে। তাই কোনো রকম অফার বা প্রলোভনে পড়ে গুগল ফরম পূরণ করবেন না।



গুগল ফটোজ: আপনার মোবাইলের গুগল ফটোজ অনেক সময় আপনার জন্য বিপদের কারণ হতে পারে। ক্যাসপারস্কির তথ্য অনুযায়ী, দুর্বৃত্তরা গুগল ফটোজের মাধ্যমে আপনার সঙ্গে ছবি শেয়ার করতে পারে, যাতে বিশাল অঙ্কের অর্থ দেওয়ার প্রতিশ্রুতির বিষয়টিও মন্তব্য আকারে থাকতে পারে। বন্ধু বা বান্ধবীর ছদ্মবেশেও আপনাকে ফাঁসানো হতে পারে। অপরিচিত কোনো উৎস থেকে আসা ছবির মেইলে উত্তর দেওয়ার আগে তাই সচেতন থাকতে হবে। গুগল ফটোজ–সদৃশ নিরীহ দর্শন এসব মেইল আসলে ক্ষতিকর স্ক্যাম।


গুগল ম্যাপস: গুগল ম্যাপের এখন বড় সমস্যা হচ্ছে, এতে অনেক ভুয়া বিজনেস প্রোফাইল বা পেজ তৈরি করা আছে। অনেক প্রকৃত ব্যবসাকে ক্ষতিগ্রস্ত করার জন্য ভুয়া ব্যবসার পেজ সৃষ্টি করে ক্ষতি করতে পারে দুর্বৃত্তরা। গুগল ম্যাপ থেকে কোনো ব্যবসার সঙ্গে অনলাইন লেনদের করার আগে তাই সতর্ক থাকতে হবে। তা না হলে আপনার অর্থ বেহাত হতে পারে।


গুগল ড্রাইভ: অনেক ম্যালওয়্যার ও প্রতারণাপূর্ণ পেজ ব্যবহারকারীর ব্যক্তিগত তথ্য হাতিয়ে নেওয়ার চেষ্টা করে। এর মধ্যে দুর্বৃত্তদের বেশি আগ্রহ থাকে ব্যাংকিং তথ্য পাওয়ার দিকে। একবার ক্লাউডের মাধ্যমে গুগল ড্রাইভে ঢুকতে পারলে তারা সর্বনাশ করে ছাড়ে। তাই গুগল ড্রাইভে অপরিচিত উৎস কোনো সন্দেহজনক লিংক পেলে তা ক্লিক করা থেকে বিরত থাকুন।




গুগল অ্যানালাইটিকস: অনেক প্রতিষ্ঠান গুগলের অ্যানালাইটিকস টুল ব্যবহার করেন। টেক্সট বা ছবিসহ কোনো লিংক পাঠিয়ে অ্যানালাইটিকসের মাধ্যমেও প্রতিষ্ঠানের তথ্য হাতিয়ে নিতে পারে দুর্বৃত্তরা। এতে খোয়াতে পারেন প্রতিষ্ঠানের প্রচুর অর্থ।